ওম কিপ্পুর – মূল দূর্গা পূজা

দূর্গা পূজা (বা দুর্গোৎসব) 6 থেকে 7 দিন ধরে আশ্বিন (আশ্বিন) মাসে  দক্ষিন এশিয়ার অধিকাংশ অঞ্চল জুড়ে উদযাপন করা হয় I অসুর মহিষাসুরের বিরুদ্ধে তার প্রাচীন যুদ্ধে দেবী দুর্গার বিজয়কে স্মরণ করতে এটি উদযাপন করা হয় I অনেক শ্রদ্ধালু উপলব্ধি করে না যে এটি অধিকতর ওম কিপ্পুর (বা প্রায়শ্চিত্তের দিন) নামক প্রাচীন উৎসবের সাথে মেলে, যেটি 3500 বছর পূর্বে আরম্ভ হয় এবং হিব্রু বছরের মধ্যে সপ্তম সৌর মাসের দশম দিনে উদযাপন করা হয় I এই উৎসব সমূহের উভয়ই প্রাচীন, উভয়ই একই দিনে পড়ে (তাদের পারস্পরিক ক্যালেন্ডার অনুযায়ী I হিন্দু এবং হিব্রু ক্যালেন্ডার সমূহের কাছে বিভিন্ন বছরের মধ্য তাদের অতিরিক্ত লিপ–মাস থাকে, যাতে তারা সর্বদা পাশ্চাত্য ক্যালেন্ডারের সঙ্গে মেলে না তবে তারা উভয়ই সেপ্টেম্বর-অক্টোবরের মধ্যে সর্বদা ঘটে) উভয়ই ত্যাগ সমূহকে জড়িত করে, এবং উভয়ই মহান বিজয় সমূহকে স্মরণ করে I কিছু পার্থক্যগুলো সমানভাবে উল্লেখযোগ্য I

প্রায়শ্চিত্তের দিনের প্রবর্তন

মশি এবং তার ভাই হারোণ ইস্রায়েলীয়দের নেতৃত্ব দিল এবং যীশুর প্রায় 1500 বছর পূর্বে ব্যবস্থা পেলেন 

আমরা ভাববাদী মশিকে অনুসরণ করলাম যিনি ইস্রায়েলীয়দের (হিব্রু বা যিহূদিগণ) দাসত্ব থেকে বার করতে নেতৃত্ব দিলেন এবং কলি যুগে ইস্রায়েলীয়দের গাইড করতে দশ আজ্ঞা সমূহ পেলেন I পাপের দ্বারা প্রবৃত্ত হওয়া একজন ব্যক্তির পক্ষে ওই দশ আজ্ঞা সমূহ অত্যন্ত কঠোর, অসম্ভব I এই আজ্ঞা সমূহকে একটি বিশেষ বাক্সের মধ্যে রাখা হয়েছিল, যাকে নিয়মের সিন্দুক বলা হয় I নিয়মের সিন্দুক এক বিশেষ মন্দিরের মধ্যে ছিল যাকে সর্বোচ্চ পবিত্র স্থান বলা হয় I  

হারোণ, মশির ভাই, এবং তার বংশধর সমূহ যাজক সমূহ ছিলেন যারা প্রায়শ্চিত্ত করতে বা লোকেদের পাপ সমূহকে আচ্ছাদন করতে এই মন্দিরের মধ্যে বলি উৎসর্গ করেছিলেন I বিশেষ বলি চড়ানো হয়েছিল ওম কিপ্পুরের উপরে – প্রায়শ্চিত্তের দিনে I এগুলো আজকের দিনে আমাদের জন্য মূল্যবান শিক্ষা, এবং  প্রায়শ্চিত্তের দিনকে (ওম কিপ্পুর) দূর্গা পূজার অনুষ্ঠান সমূহের সাথে তুলনা করে আমরা অনেক কিছু জানতে পারি I  

প্রায়শ্চিত্তের দিন এবং বলির পাঁঠা 

হিব্রু বেদা, অর্থাৎ বাইবেল আজকে, মশির সময় থেকে প্রায়শ্চিত্তের দিনের বলিদান এবং রীতিগুলো সম্বন্ধে মূল্যবান নির্দেশ সমূহ দিয়েছে I আমরা দেখি কিভাবে এই নির্দেশগুলো আরম্ভ হয়:

১ হারোণের দুই পুত্র প্রভুর কাছে উপস্থিত হয়ে মারা ইস্রায়েলেবার পর প্রভু মোশিকে বললেন,
২ “তোমার ভাই হারোণের সঙ্গে কথা বলো, তাকে বলো যে সে তার ইচ্ছা মত যে কোন সমযে পর্দার পিছনে পবিত্রতম জায়গায় যেতে পারে না| চুক্তির পবিত্র সিন্দুকটি ঐ পর্দার পিছনের ঘরে আছে| ঐ পবিত্র সিন্দুকটির মাথায় আছে বিশেষ ধরণের আচ্ছাদন| আমি ঐ বিশেষ আচ্ছাদনের ওপর মেঘের মধ্যে আবির্ভূত হই| যদি হারোণ ঐ ঘরে ঢোকে সে মারা যেতে পারে|

লেবীয় 16:1-2 

মহা যাজক হারোণের দুই পুত্র মারা গেল যখন তারা অসম্মানজনকভাবে সর্বোচ্চ  পবিত্র স্থান মন্দিরে প্রবেশ করল যেখানে সদাপ্রভুর উপস্থিতি ছিল I সেই পবিত্র উপস্থিতিতে দশ আজ্ঞা সমূহকে পালন করার ব্যর্থতা তাদের মৃত্যুর ফলস্বরূপ হ’ল I   

তাই সতর্কমূলক নির্দেশগুলো দেওয়া হল, পুরো বছরের মধ্যে কেবলমাত্র একটি দিন সহ যখন মহা যাজক সর্বাধিক পবিত্র স্থানে প্রবেশ করতে পারে – প্রায়শ্চিত্তের দিনে I যদি তিনি অন্য কোনো দিন পবেশ করতেন, তবে তিনি মারা যেতেন I তবে এমনকি এই এক দিনে, নিয়মের সিন্দুকের উপস্থিতিতে প্রবেশ করতে পারার পূর্বে, তাকে করতে হত:

৩ “পাপের প্রাযশ্চিত্তের দিন হারোণ অবশ্যই পাপমোচনের নৈবেদ্যর জন্য একটি ষাঁড় এবং হোমবলির জন্য একটি পুরুষ মেষ উত্সর্গ করবে| পবিত্রতম জায়গায় প্রবেশ করার আগেই হারোণ এটা করবে|
৪ হারোণ অবশ্যই তার দেহ জলে ধৌত করবে| তারপর সে এই সমস্ত পোশাক পরবে; হারোণকে অতি অবশ্যই পবিত্র লিনেন জামা পরতে হবে| লিনেনের অন্তর্বাসসমূহ তার দেহে থাকবে| সে তার চারপাশে লিনেনের বেল্ট ব্যবহার করবে এবং লিনেনের পাগড়ী পরবে| ঐগুলি হল পবিত্র পোশাক|

লেবীয় 16:3-4 

দূর্গা পূজার সপ্তমীর দিনে, দুর্গাকে প্রাণ প্রতিষ্ঠার দ্বারা মূর্তির মধ্যে আহ্বান করা  হয় এবং মূর্তিকে স্নান করিয়ে বস্ত্র দ্বারা সজ্জিত করা হয় I এছাড়া ওম কিপ্পুরও স্নান প্রক্রিয়াকে জড়িত করেছিল তবে ইনি মহা যাজক ছিলেন যাকে স্নান করানো হত এবং সর্বোচ্চ পবিত্র স্থানে, দেব-দেবীর কাছে নয়, প্রবেশ করাতে প্রস্তুত করা হত I সদাপ্রভু ঈশ্বরকে ডাকা – সারা বছর ধরে সর্বোচ্চ পবিত্র স্থানে তার উপস্থিতি অপ্রয়োজনীয় ছিল I পরিবর্তে এই উপস্থিতির সম্মুখীন হতে প্রস্তুত হওয়ার প্রয়োজন ছিল I যাজককে স্নান এবং বস্ত্র দ্বারা সজ্জিত করানোর পরে পশুদেরকে বলিদানের জন্য নিয়ে আসতে হত

৫ “ইস্রায়েলের লোকদের কাছ থেকে হারোণ দুটি পুরুষ ছাগল পাপমোচনের নৈবেদ্যর জন্য এবং একটি পুরুষ মেষ হোমবলির জন্য নেবে|
৬ তারপর হারোণ ষাঁড়টিকে পাপ মোচনের নৈবেদ্য হিসেবে উপহার দেবে| পাপ মোচনের নৈবেদ্যটি তার নিজের জন্য| নিজেকে এবং তার পরিবারকে পবিত্র করার জন্য হারোণ অবশ্যই এটা করবে|  I 

লেবীয় 16:5-6 

হারোণের নিজের পাপের জন্য আচ্ছাদন বা প্রায়শ্চিত্ত করতে, একটি ষাঁড়কে বলি দেওয়া হত I দূর্গা পূজার সময়ে মাঝে মাঝে ষাঁড় বা ছাগলের বলিদান করা হয় I যাজকের নিজের পাপকে আচ্ছাদন করতে ওম কিপ্পুরের জন্য ষাঁড়ের বলিদান একটি বিকল্প ছিল না I ষাঁড়ের বলিদানের সাহায্যে যদি তিনি তার পাপের আচ্ছাদন না করতেন তবে যাজক মারা যেতেন I   

তার ঠিক অব্যবহিত পরে, যাজক দুটি ছাগলের সম্বন্ধে উল্লেখযোগ্য আচরণবিধি  অনুষ্ঠিত করতেন I 

৭ “তারপর হারোণ ছাগল দুটি নেবে এবং তা সমাগম তাঁবুর ঢোকার দরজার মুখে প্রভুর সামনে আনবে।
৮ হারোণ ছাগল দুটির জন্য ঘুঁটি চাললে একটা হবে প্রভুর জন্য, অপরটি হবে অজাজেলের জন্য।
৯ “তারপর ঘুঁটি চেলে যে ছাগলটি প্রভুর জন্য নির্বাচিত হয় হারোণ অবশ্যই সেটিকে পাপ মোচনের নৈবেদ্য হিসাবে উত্সর্গ করবে।

লেবীয় 16:7-9 

তার নিজের পাপের জন্য একবার ষাঁড়ের বলিদান হয়ে গেলে, যাজক ছাগল দুটিকে নিয়ে গুলিবাঁট করতেন I একটি ছাগলকে বলির পাঁঠা রূপে সঙ্গায়িত করা হত I অন্য ছাগলটিকে পাপবলি রূপে উৎসর্গ করা হত I কেন?  

১৫ “তারপর হারোণ লোকদের জন্য পাপ মোচনের নৈবেদ্যর ছাগলটিকে হত্যা করে সেই রক্ত পর্দার আড়ালের ঘরটিতে আনবে। ষাঁড়ের রক্ত নিয়ে ইস্রায়েলে করেছিল, ছাগলটির রক্ত নিয়ে হারোণ ঠিক তাই করবে। হারোণ অবশ্যই ছাগলের রক্ত বিশেষ আচ্ছাদনের ওপর এবং আচ্ছাদনের সামনে ছিটিয়ে দেবে।
১৬ এইভাবে সে ঐ পবিত্রতম জায়গাটিকে ইস্রায়েলের লোকদের তাদের অশুচিতা, বিরুদ্ধাচরণ এবং তাদের কৃত সমস্ত পাপ থেকে শুচি করবে। হারোণকে সমাগম তাঁবুর জন্য এই সমস্ত কিছু করতে হবে, কারণ এটা অশুচি লোকদের মাঝখানে আছে।

লেবীয় 16:15-16 

বলির পাঁঠাটির ক্ষেত্রে কি ঘটল?

২০ “পবিত্রতম স্থান, সমাগম তাঁবু এবং বেদীকে পবিত্র করার পর হারোণ জীবন্ত ছাগলটি প্রভুর কাছে আনবে।”
২১ হারোণ তার হাত দুটি জীবন্ত ছাগলের মাথায় রাখবে এবং তার ওপর ইস্রায়েলের লোকদের পাপ ও অপরাধগুলি স্বীকার করবে। এইভাবে হারোণ লোকদের পাপসমূহকে ছাগলের মাথায় চাপাবে। তারপর সে ছাগলটাকে মরুভূমিতে পাঠাবে। একজন মানুষ নিযুক্ত করা হবে এবং সে ছাগলটিকে নিয়ে ইস্রায়েলেওযার জন্য তৈরী থাকবে।
২২ সুতরাং ছাগলটা নিজের ওপর সমস্ত মানুষের পাপ বয়ে নিয়ে খোলা মরুভূমিতে চলে ইস্রায়েলেবে। যে মানুষটি ছাগলটিকে নিয়ে ইস্রায়েলেবে সে তাকে মরুভূমিতে ছেড়ে দিয়ে আসবে।

লেবীয় 16:20-22 

ষাঁড়ের বলিদান হারোণের নিজের পাপের জন্য ছিল I প্রথম ছাগলের বলিদান ইস্রায়েলীয় লোকেদের পাপের জন্য ছিল I হারোণ তারপর জীবিত বলির পাঁঠাটির মস্তকের উপরে হস্তার্পণ করতেন এবং – প্রতীকাত্মক রূপে – বলির পাঁঠার উপরে লোকেদের পাপ সমূহকে প্রত্যার্পণ করতেন I তারপরে ছাগলটিকে প্রান্তরে ছেড়ে দেওয়া হত একটি চিহ্ন রূপে যেন লোকেদের পাপ সমূহ এখন লোকেদের থেকে দূরে অপসারিত হয়েছে I এই বলিদান সমূহের সাথে তাদের পাপ সমূহের প্রায়শ্চিত্ত হত I এটি প্রত্যেক বছর প্রায়শ্চিত্তের দিনে করা হত কেবলমাত্র সেই দিনে I 

প্রায়শ্চিত্তের দিন এবং দূর্গা পূজা 

ঈশ্বর কেন প্রতি বছর এই দিনে উৎসব উদযাপন করতে আজ্ঞা দিয়েছিলেন? এটি কি বোঝাতে চেয়েছিল? দূর্গা পূজা সেই সময়কে পেছনে ফিরে দেখে যখন দূর্গা মহিষ দানব মহিষাসুরকে পরাস্ত করেছিলেন I এটি অতীতের একটি ঘটনাকে স্মরণ করে I এছাড়া প্রায়শ্চিত্তের দিনটিও বিজয়কে স্মরণ করত তবে এটি ভবিষ্যদ্বাণীপূর্ণ ছিল যার মধ্যে এটি মন্দের উপরে একটি ভবিষ্যত বিজয়কে দেখেছিল I যদিও প্রকৃত পশুদের বলি দেওয়া হত, তবুও তারা প্রতীকাত্মক  ছিল I বেদা পুস্তকম (বাইবেল) সেটিকে ব্যাখ্যা করে    

৪ কারণ বৃষের কি ছাগের রক্ত পাপ দূর করতে পারে না।

ইব্রীয় 10:4 

প্রায়শ্চিত্তের দিনে বলিদানগুলো যেহেতু যাজক এবং শ্রদ্ধালুদের পাপ সমূহকে প্রকৃতপক্ষে হরণ করতে পারত না, তবে কেন প্রতি বছর তাদেরকে উৎসর্গ  করা হত? বেদা পুস্তকম (বাইবেল) ব্যাখ্যা করে 

১ ভবিষ্যতে য়ে সকল উত্‌কৃষ্ট বিষয় আসবে, বিধি-ব্যবস্থা হচ্ছে তারই অস্পষ্ট ছায়া মাত্র। বিধি-ব্যবস্থা ঐসব বিষয়ের বাস্তবরূপ নয়। তাই যাঁরা ঈশ্বরের উপাসনা করতে আসে, বছর বছর তারা একই রকম বলিদান বারবার করে, কিন্তু বিধি-ব্যবস্থা সেই লোকদের সিদ্ধি দিতে পারে না।
২ বিধি-ব্যবস্থা যদি পারত, তবে ঐ বলিদান কি শেষ হত না? কারণ যাঁরা উপাসনা করে তারা যদি একবার শুচি হয় তবে তাদের পাপের জন্য নিজেকে আর দোষী ভাববার প্রযোজন নেই। কিন্তু বিধি-ব্যবস্থা তা করতে সক্ষম নয়।
৩ ঐসব লোকের বলিদান বছর বছর তাদের পাপের ক্ষমা স্মরণ করিয়ে দেয়,

ইব্রীয় 10:1-3 

বলিদান সমূহ যদি পাপগুলোকে ধুয়ে ফেলতে পারত, তবে সেগুলোর পুনরাবৃত্তির প্রয়োজন হত না I কিন্তু তাদেরকে বছরের পর বছর পুনরাবৃত্তি করা হত, যা দেখায় যে সেগুলো কার্যকর ছিল না I   

তবে যখন যীশু খ্রীষ্ট (যেশু সৎসংগ) স্বয়ংকে এক বলিদান রূপে উৎসর্গ করলেন তখন এটির সম্পূর্ণরূপে পরিবর্তন ঘটল I  

৫ সেইজন্যই খ্রীষ্ট এ জগতে আসার সময় বলেছিলেন:‘তুমি বলিদান ও নৈবেদ্য চাও নি, কিন্তু আমার জন্য এক দেহ প্রস্তুত করেছ।
৬ তুমি হোমে ও পাপার্থক বলিদান উত্‌সর্গে প্রীত নও।
৭ এরপর তিনি বললেন, ‘এই আমি! শাস্ত্রে আমার বিষয়ে য়েমন লেখা আছে, হে ঈশ্বর দেখ, আমি তোমার ইচ্ছা পূর্ণ করতেই এসেছি।’গীতসংহিতা ৪০:৬-৮

ইব্রীয় 10:5-7 

তিনি নিজেকে বলি রূপে উৎসর্গ করতে এসেছিলেন I এবং যখন তিনি করলেন  

… যীশু খ্রীষ্টের দেহ একবার সকলের জন্য উৎসর্গ করণের দ্বারা আমরা পবিত্রীকৃত হয়েছি I 

১০ ঈশ্বরের ইচ্ছানুসারেই তিনি এই কাজ সমাপ্ত করেছেন। এইজন্যই খ্রীষ্ট তাঁর দেহ একবারেই চিরকালের জন্য উত্‌সর্গ করেছেন যাতে আমরা চিরকালের জন্য পবিত্র হই।

ইব্রীয় 10:10 

দুটি ছাগলের বলিদান প্রতীকাত্মকরূপে ভবিষ্যতের বলিদান এবং যীশুর বিজয়ের দিকে সংকেত দিচ্ছিল I তিনি বলিসংক্রান্ত ছাগল ছিলেন যেহেতু তাকে বলি দেওয়া হয়েছিল I এছাড়াও তিনি বলির পাঁঠা ছিলেন, যেহেতু তিনি বিশ্বব্যাপী সম্প্রদায়ের সমস্ত পাপ সমূহকে গ্রহণ করলেন এবং সেগুলোকে আমাদের থেকে দূরে অপসারণ করলেন, যাতে আমরা পরিস্কৃত হতে পারি I  

প্রায়শ্চিত্তের দিন কি দূর্গা পূজা ঘটিয়েছিল?

ইস্রায়েলের ইতিহাসের মধ্যে আমরা দেখেছি প্রায় 700 খ্রীষ্টপূর্বাব্দে কিভাবে ইস্রায়েলের থেকে নির্বাসন ভারতে পৌঁছতে আরম্ভ করল, ভারতের শিক্ষা এবং ধর্মে অনেক অবদান করল I এই ইস্রায়েলীয়রা প্রত্যেক বছর সপ্তম মাসের দশম দিনে প্রায়শ্চিত্তের দিন উদযাপন করে থাকত I সম্ভবতঃ, ঠিক যেমন তারা ভারতের বিশেষ ভাষা সমূহে অবদান করল, ঠিক তেমনি তারা তাদের প্রায়শ্চিত্তের দিনকে অবদান করল যা দূর্গা পূজায় পরিণত হল, মন্দের উপরে এক মহান বিজয়ের উপরে স্মরণ I এটি দূর্গা পূজার আমাদের ঐতিহাসিক উপলব্ধির সাথে খাপ খায়, যা 600 খ্রীষ্টপূর্বাব্দের আশেপাশে উদযাপিত হতে আরম্ভ করল I     

কবে প্রায়শ্চিত্তের দিনের বলিদান সমূহ শেষ হ’ল  

যীশুর (যেশু সৎসংগ) বলিদান আমাদের স্বপক্ষে কার্যকর এবং পর্যাপ্ত ছিল I ক্রুশের (33 খ্রীষ্টাব্দ) উপরে যীশুর বলিদানের পরে শীঘ্রই রোমীয়রা 70 খ্রীষ্টাব্দে সর্বোচ্চ পবিত্র স্থানের সাথে মন্দিরকে ধ্বংস করল I তখন থেকে যিহূদিরা আর কখনও প্রায়শ্চিত্তের দিনে কোনো বলি উৎসর্গ করল না I আজ, যিহূদিরা উপবাসের একটি বিষন্ন দিনকে পালন করার দ্বারা এই উৎসবটি উদযাপন করে I ঠিক যেমন বাইবেল ব্যাখ্যা করে, একবার যখন কার্যকর বলিদান উৎসর্গ করা হ’ল তখন বাৎসরিক বলিদান চালিয়ে যাওয়ার আর কোনো প্রয়োজন ছিল না I তাই ঈশ্বর এটিকে বন্ধ করলেন I  

দূর্গা পূজার মধ্যে প্রতিমূর্তি এবং প্রায়শ্চিত্তের দিন 

দূর্গা পূজা দুর্গার একটি প্রতিমূর্তির আহ্বানে জড়িত থাকে যাতে মূর্তির মধ্যে দেবী বাস করে I প্রায়শ্চিত্তের দিন আসন্ন বলিদানের একটি ভবিষ্যদ্বাণী ছিল এবং কোনো প্রতিমূর্তিকে আহ্বান করে নি I সর্বোচ্চ পবিত্র স্থানের মধ্যে ঈশ্বর অদৃশ্য ছিলেন এবং তাই কোনো প্রতিমূর্তি ছিল না I  

তবে সফল বলিদানের সময়ে, বহু বছর ধরে প্রায়শ্চিত্তের অনেক দিন আগেই  একজন যেদিকে ইঙ্গিত করেছিল, সেখানে একট প্রতিমূর্তিকে আহ্বান করা   হয়েছিল I যেমন বেদা পুস্তকম (বাইবেল) ব্যাখ্যা করে   

১৫ কেউই ঈশ্বরকে দেখতে পায় না; কিন্তু যীশুই অদৃশ্য ঈশ্বরের প্রতিমূর্তি এবং সমস্ত সৃষ্টির প্রথমজাত।

কলসীয় 1:15 

সফল বলিদানের সময়ে, অদৃশ্য ঈশ্বরের প্রতিমূর্তিকে আহ্বান করা হয়েছিল এবং মানব যীশু হবে বলে দেখানো হয়েছিল I  

মূল্য গণনা করা 

আমরা বেদা পুস্তকমের (বাইবেল) মধ্য দিয়ে যাচ্ছি I আমরা দেখেছি ঈশ্বর কিভাবে তার পরিকল্পনাকে প্রকাশ করতে বিভিন্ন চিহ্ন সমূহ দিয়েছেন I প্রারম্ভে তিনি আসন্ন ‘সে’ সম্বন্ধে ভবিষ্যদ্বাণী করলেন I এটি ভাববাদী আব্রাহামের বলিদান, নিস্তারপর্বের বলিদানের পরে এলো, এবং এছাড়া প্রায়শ্চিত্তের দিনের পরেও I ইস্রায়েলীয়দের উপরে মশির আশীর্বাদ এবং অভিশাপ সমূহ বাকি রইল I এটি তাদের ইতিহাসকে সঞ্চালন করত, পৃথিবী ব্যাপী ইস্রায়েলীয়দের বিচ্ছিন্ন করে, এমনকি ভারতের মধ্যেও, যেমন এখানে ব্যাখ্যা করা হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *